রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক পেলেন পাকুন্দিয়া থানার ওসি আসাদুজ্জামান টিটু


admin প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারী ২৭, ২০২৪, ৯:১৯ অপরাহ্ন /
রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক পেলেন পাকুন্দিয়া থানার ওসি আসাদুজ্জামান টিটু

শাহজাহান সাজু (নিজস্ব) প্রতিবেদক:

বীরত্বপূর্ণ সাহসিকতা গুরুত্বপূর্ণ মামলার রহস্য উদঘাটন, অপরাধ নিয়ন্ত্রণ, দক্ষতা, কর্তব্যনিষ্ঠা, সততা ও শৃঙ্খলামূলক আচরণের প্রশংসনীয় অবদানের জন্য রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক (পিপিএম) সেবা পেয়েছেন পাকুন্দিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসাদুজ্জামান টিটু।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স অনুষ্ঠিত বার্ষিক পুলিশ সপ্তাহে কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (নি:) অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসাদুজ্জামান টিটু, রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক, ২০২৩ গ্রহণ করেন।

এর আগে তিনি Police Force Exemplary Good Service Badge-২০১৭ পদকে ভূষিত হন। তিনি সমাজকল্যাণ বিষয়ে স্নাতক এবং সমাজকর্ম বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ২০১০ সালে আউটসাইড ক্যাডেট সাব -ইন্সপেক্টর পদে যোগদান করেন। চাকরি জীবনে তিনি ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ , টাঙ্গাইল জেলা গোয়েন্দা শাখা, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ, ঢাকা জেলা পুলিশ এবং কিশোরগঞ্জ জেলার হোসেনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

ঢাকার রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে অনুষ্ঠিত বার্ষিক পুলিশ সপ্তাহে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত হয়ে পদক প্রাপ্তদের ব্যাজ পড়িয়ে দেন।

উল্লেখ্য: সেবামূলক কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ মোট ৪০০ পুলিশ সদস্য বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম), বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম-সেবা), রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক (পিপিএম) এবং রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক (পিপিএম-সেবা) পেয়েছেন। এই পদক পুলিশের চাকুরিতে খুবই সম্মানজনক। পুলিশের সর্বোচ্চ স্বীকৃতি বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম)। এরপরই প্রেসিডেন্ট পুলিশ পদক (পিপিএম)।

এই দুই পদকে যারা ভূষিত হোন তারা এককালীন অর্থ ও প্রতি মাসে ভাতা পান এবং নামের শেষে এই পদক উপাধি হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

পদক প্রাপ্ত পাকুন্দিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসাদুজ্জামান টিটু বলেন, পুলিশের সব ধরনের কাজ সেবামূলক। সব সময় সেবার ব্রতে কাজ করতে হয়। সাধারণ মানুষের সেবার স্বীকৃতি স্বরূপ রাষ্ট্রপতি পদক (পিপিএম) প্রাপ্তিতে উৎসাহ বৃদ্ধি পেল। তিনি আরও বলেন, পুলিশ জনগণের বন্ধু, বন্ধু সুলভ মনোভাব নিয়ে সর্বসাধারণের সেবায় আমি বদ্ধপরিকর।